Breaking News

ডেবরা এলাকায় করোনা যোদ্ধাদের সম্মানিত করার মধ্য দিয়ে সাড়ম্বরে প্রজাতন্ত্র দিবস উজ্জাপন

ডেবরা এলাকায় করোনা যোদ্ধাদের সম্মানিত করার মধ্য দিয়ে সাড়ম্বরে প্রজাতন্ত্র দিবস উজ্জাপন

ডেবরা এলাকায় করোনা যোদ্ধাদের সম্মানিত করার মধ্য দিয়ে সাড়ম্বরে প্রজাতন্ত্র দিবস উজ্জাপন

নিজস্ব প্রতিবেদন, এক্স সার্ভিসম্যান ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন ডেবরা কর্তৃক করোনা যোদ্ধাদের সম্মানিত করার মধ্য দিয়ে সাড়ম্বরে প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপন হল। এদিন সমস্ত করোনা বিধি মেনে পূর্ণ মর্যাদায় সাড়ম্বরে দেশের ৭২ তম প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপন করা হয়। যা গোটা এলাকায় ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। উক্ত অনুষ্ঠানটি সংঘটিত হয় ডেবরা অডিটোরিয়ামে। এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিধায়ক, ডেবরা বিধানসভা, এস. ডি. পি. ও. ডেবরা পুলিশ সাব ডিভিশন, অধ্যাপিকা, শহীদ ক্ষুদিরাম স্মৃতি মহাবিদ্যালয় ডেবরা, রাজ্য সভাপতি, ইন্ডিয়ান এক্স সার্ভিসেস লিগ, বি. এম. ও. এইচ. ডেবরা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল, সার্কেল ইন্সপেক্টর অফ পুলিশ ডেবরা সার্কেল, ওসি ডেবরা পুলিশ স্টেশন তৎসহ এলাকার বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

এ দিনটি উদযাপিত হয় এলাকার এবং দূর দূরান্ত থেকে আগত বিভিন্ন এক্স সার্ভিসম্যান, তাদের পরিবারবর্গ এবং ছোট ছোট কোচি কাঁচাদের নিয়ে সুন্দর একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে। তারা নানান দেশাত্মবোধক গান, নাচ, আবৃত্তি ও বক্তৃতার মধ্য দিয়ে তাদের নিপুণ দক্ষতা প্রদর্শন করে অনুষ্ঠানটিকে একটি চাঁদের হাট করে তোলে এবং উপস্থিত সমস্ত মানুষজনের মন কেড়ে নেয়। অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ ছিল করোনা যোদ্ধাদের সম্বর্ধনা প্রদান। প্রকৃত যোদ্ধারাই যে কেবল অন্য যোদ্ধাদের যোগ্য সম্মান দিতে পারে তার সঠিক প্রমাণ দিল এক্স সার্ভিসম্যান ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন, ডেবরার সভ্যবৃন্দরা। যারা বীর সৈনিকের মতো নিজের জীবনকে তুচ্ছ জ্ঞান করে অতিমারীর সময় নিঃস্বার্থভাবে মানুষের সেবা করেছেন, মানুষের প্রাণ বাঁচিয়েছেন সেই ডাক্তার, নার্স, আশা কর্মী, পুলিশ, সিভিক ভলেন্টিয়ারদের (প্রতিনিধিমূলক) পুষ্পস্তবক স্মারক ও শংসাপত্র দিয়ে সম্বর্ধনা জানানো হয়। উপস্থিত অতিথীবর্গ দিনটির তাৎপর্য নিয়ে তাদের মূল্যবান বক্তব্য রাখেন।

অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মাননীয় শিবু দাস মহাশয় বলেন, এই অ্যাসোসিয়েশন একটি পরিবার হিসেবে কাজ করবে। তাদের বিভিন্ন সমস্যায় যথোপযুক্ত সাহায্য প্রদান করবে যেমন সময়মতো ফ্যামিলি পেনশন শুরু করানো, ই. সি. এইচ. এস. কার্ড তৈরি, ক্যান্টিন স্মার্ট কার্ড তৈরিতে সাহায্য করা প্রভৃতি। এলাকার যুব সমাজ যাতে আরও অধিক সংখ্যায় আর্মি, নেভি এবং এয়ারফোর্সের মত সম্মানজনক চাকুরীতে যোগদান করে দেশসেবার সুযোগ পায় তার জন্য বিভিন্ন স্কুলে কলেজে গিয়ে মোটিভেশনাল লেকচার কন্ডাক্ট করা ইত্যাদি বিষয়ে সক্রিয় অংশগ্রহণের কথা তুলে ধরেন। অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মাননীয় বিশ্বজিৎ ভূঁইয়া মহাশয় বলেন, অ্যাসোসিয়েশন এক্স সার্ভিস ম্যান ও তার পরিবারদের সাহায্য প্রদানের পাশাপাশি বিভিন্ন সমাজকল্যাণমূলক কাজ করবে যেমন স্বেচ্ছায় রক্তদান শিবির, স্বচ্ছ ভারত অভিযানে অংশ গ্রহণ, বিভিন্ন সমাজ সচেতনতামূলক কাজ, বিপর্যয় মোকাবিলায় সক্রিয় অংশগ্রহণ প্রভৃতি। তিনি উপস্থিত অতিথিবর্গ এবং এক্স সার্ভিসম্যান পরিবারকে তাদের মূল্যবান সময় ব্যয় করে এরকম একটি মহৎ অনুষ্ঠানে আসার জন্য কৃতজ্ঞতা জানায়। উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবাইকে নিয়ে একটি সুন্দর প্রীতি ভোজের মধ্য দিয়ে এদিনের অনুষ্ঠান সুসম্পন্ন হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *