Breaking News

সমাজবিরোধীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবীতে কাঁথি মহকুমায় তৃণমূল মৎস্যজীবি সেলের ডেপুটেশন প্রদান

সমাজবিরোধীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবীতে কাঁথি মহকুমায় তৃণমূল মৎস্যজীবি সেলের ডেপুটেশন প্রদান

সমাজবিরোধীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবীতে কাঁথি মহকুমায় তৃণমূল মৎস্যজীবি সেলের ডেপুটেশন প্রদান

নিজস্ব প্রতিবেদন, পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথি মহকুমায় তৃণমূল কংগ্রেসের মৎস্যজীবি সেলের উদ্যোগে ডেপুটেশন ও স্মারকলিপি প্রদান। তাদের দাবি, গোটা এলাকা জুড়ে সিপিআইএম-এর দলছুট হার্মাদ ও দাদার অনুগামী তোলাবাজ দের সংমিশ্রণে নব্য বিজেপির সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার অপচেষ্টা হচ্ছে। পাশাপাশি সন্ত্রাসের চক্রান্ত সৃষ্টি, পেটুয়াতে মৎস্যজীবিদের উপর পুলিশের জুলুমবাজি, তৃণমূল কংগ্রেসের পতাকা, ফেস্টুন ও ফ্লেক্স ছিঁড়ে দেওয়া, জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাটআউটকে পদদলিত করা সমাজবিরোধীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবীতে তৃণমূল কংগ্রেসের মৎস্যজীবি সেলের উদ্যোগে কাঁথি থানার আইসি ও মহকুমা পুলিশ আধিকারিককে কাছে ডেপুটেশন ও স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

তার আগে কয়েক হাজার মানুষকে নিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মহামিছিল আয়োজিত হয়। কর্মসূচীতে নেতৃত্ব দেন জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি সুপ্রকাশ গিরি, জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কোঅরডিনেটর মামুদ হোসেন, জেলা নেতৃত্ব তরুণ জানা, কোমেন্টর হাবিবুর রহমান, উত্তম বারিক, প্রদীপ গায়েন, হরিসাধন দাস অধিকারী, দেবাশীষ পাহাড়ী, আমিন সোহেল, রামগোবিন্দ দাস, তপন সামন্ত প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি সুপ্রকাশ গিরি অভিযোগ করেন কাঁথি শহর সহ মহকুমার সর্বত্র নব্য বিজেপিরা মেরুকরণের রাজনীতির পথ বেছে নিয়েছে। সর্বস্তরের মানুকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে বিভেদের রাজনীতিকে স্তব্ধ করে দিতে হবে।

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার অপচেষ্টা রোধে সবাইকে জোটবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কোঅরডিনেটর মামুদ হোসেন। কৃষক, শ্রমিক, বেকার, তপশিলি জাতি ও উপজাতি, দলিত সংখ্যালঘু ও আর্থিক ভাবে পিছিয়ে পড়া মানুষের স্বার্থ জলাঞ্জলি দেওয়া বিজেপি ব্যর্থতা ঢাকতে ও মানুষের দৃষ্টিভঙ্গী অর্থনৈতিক সঙ্কট থেকে ঘুরিয়ে দিতে মেরুকরণের রাজনীতির পথ বেছে নিয়েছে বলে অভিযোগ করেন মামুদ হোসেন। জেলা নেতৃত্ব তরুণ জানা পুলিশ প্রশাসনের একাংশ বিজেপির সাথে মাখামাখির বিরুদ্ধে সরব হন।বিজেপি দুষ্কৃতকারীদের বিরুদ্ধে অবিলম্বে ব্যবস্থা গ্রহন না করলে বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দেন প্রদীপ গায়েন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *