Breaking News

প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন প: মেদিনীপুরে কৃষি আন্দোলনের সমর্থনে মিছিলের আয়োজন

প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন প: মেদিনীপুরে কৃষি আন্দোলনের সমর্থনে মিছিলের আয়োজন

প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন প: মেদিনীপুরে কৃষি আন্দোলনের সমর্থনে মিছিলের আয়োজন

নিজস্ব প্রতিবেদন, এ বছর প্রজাতন্ত্র দিবসে ঐতিহাসিক কৃষক আন্দোলনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচি হিসেবে দিল্লিতে ট্রাক্টর প্যারেড অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। এরূপ ঘোষণা মাত্রই ভারতবর্ষের প্রান্তে প্রান্তে বিভিন্ন অংশের শোষিত সাধারণ মানুষ অত্যন্ত আবেগের সঙ্গে এই কর্মসূচিটিকে সফল করবার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করেন। ‘অল ইন্ডিয়া জন অধিকার সুরক্ষা কমিটি’ সর্বভারতীয় স্তরে এই কর্মসূচিতে অংশ নেয়। ইতিপূর্বে ৯ জানুয়ারি আদিবাসীদের ঐতিহাসিক সংগ্রাম “উলগুলান” দিবসে দিল্লিতে তিনটি ধর্না মঞ্চে উপস্থিত হয় এই সংগঠনের পক্ষ থেকে সংহতি জ্ঞাপন করা হয়। ওই মঞ্চের ঘোষণা অনুযায়ী গতকাল দিল্লির ট্রাক্টর প্যারেড এর সমর্থনে বিভিন্ন রাজ্যে জেলায় জেলায় এবং আঞ্চলিক স্তরে বিক্ষোভ মিছিল প্রদর্শন করে সংহতি জ্ঞাপন করা হয়।

পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা কমিটির পক্ষ থেকে সুসজ্জিত দাবি-প্লাকার্ড, ধামসা-মাদল সম্বলিত একটি মিছিল জেলা শহর পরিক্রমা করে এসে মেদিনীপুর কলেজের সম্মুখে রবীন্দ্রনাথের পাদদেশে সমবেত হয়। আদিবাসী নর-নারী সহ বহু শিক্ষক অধ্যাপক বিশিষ্ট ব্যক্তি এই মিছিলে অংশগ্রহণ করেন। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জনজাতি আন্দোলনের বিশিষ্ট নেতা বঙ্কিম মুর্মু, তুষার জানা প্রমূখ। তাঁরা বলেন, বৃহৎ কর্পোরেট মালিকদের স্বার্থে ভারতবর্ষের সাধারণ কৃষকসহ দরিদ্র মানুষের জীবন-জীবিকাকে সর্বনাশের দিকে ঠেলে দেওয়ার জন্য কেন্দ্রের বিজেপি সরকার তিনটি কৃষি আইন, বিদ্যুৎ আইন সংশোধনী ২০২০, জল জমি জঙ্গলের অধিকার সংক্রান্ত আইন সংশোধন করবার ষড়যন্ত্র করেছে। দরিদ্র আদিবাসীসহ সর্বস্তরের মানুষের সর্বনাশ করার জন্য তারা উঠে পড়ে লেগেছে। ভারতবর্ষের লক্ষ লক্ষ কৃষক নারী-পুরুষ শিশু-বৃদ্ধ নির্বিশেষে দিল্লির পার্শ্ববর্তী এলাকা ঘিরে গত দু’মাসের যে ঐতিহাসিক সংগ্রাম চালিয়ে আসছেন তা আপামর দেশবাসীর স্বার্থেই। এই আন্দোলনে ইতিমধ্যেই শতাধিক সংগ্রামী কৃষক শহীদ হয়েছেন।

আন্দোলনকে আরো তীব্রতর করবার জন্য প্রাণ বলিদান করতে লক্ষ লক্ষ কৃষক অঙ্গীকারবদ্ধ হয়ে সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছেন। সেই কারণে এই আন্দোলনকে অল ইন্ডিয়া জন অধিকার সুরক্ষা কমিটি সর্বতোভাবে সফল করবার জন্য একের পর এক কর্মসূচি চালিয়ে আসছে। কেন্দ্রীয় সরকার যতদিন পর্যন্ত এই আইন বাতিল ঘোষণা করছে এবং জল জমি জঙ্গলের অধিকার আদিবাসী ও বনবাসী মানুষদের ফিরিয়ে দিচ্ছে ততদিন পর্যন্ত আমরা ধারাবাহিকভাবে সংগ্রামকে আরো তীব্রতর করে যাব। তাঁরা আরো বলেন, রাষ্ট্রপতির উদ্দেশ্যে ভারতবর্ষের রাজ্যে রাজ্যে বিভিন্ন ভাষায় লক্ষ্য লক্ষ্য পোস্টকার্ডে কোটি কোটি মানুষ স্বাক্ষর করছেন। আগামী মার্চ মাসে বিশাল মিছিল করে সেই পোস্ট কার্ড রাষ্ট্রপতির উদ্দেশ্যে পোস্টিং করা হবে। দাবি আদায়ের স্বার্থে এই আন্দোলনকে শক্তিশালী করার জন্য সর্বস্তরের শুভবুদ্ধি সম্পন্ন মানুষের প্রতি তাঁরা আহ্বান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *