Breaking News

আবারো রাজ্যে আর্থিক অনটনের জেরে আত্মহত্যা করল অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক

আবারো রাজ্যে আর্থিক অনটনের জেরে আত্মহত্যা করল অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক

আবারো রাজ্যে আর্থিক অনটনের জেরে আত্মহত্যা করল অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক

নিজস্ব প্রতিবেদন, আবারো রাজ্যের আর্থিক অনটনের কারণে আত্মহত্যা করলেন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক। চারিদিকে নিন্দার ঝড়, পূর্ব মেদিনীপুর জেলার চন্ডিপুর থানার চৌখালী এলাকায় চৌখালী হাই স্কুলের ভোকেশনালের চুক্তভিত্তিক শিক্ষক ছিলেন তপন পট্টনায়েক। ২০০৫ সাল থেকেই চুক্তিভিত্তিক হিসেবে শিক্ষকতা করতেন চৌখালী হাইস্কুলে, প্রায় এক মাস আগে স্কুল থেকে অবসর হওয়ার পরেই আর্থিক অনটনে পড়েন তপনবাবু।

এরপর কলকাতার শহীদ মিনারে বঞ্চিত বৃত্তিমূলক বিভাগের শিক্ষক, প্রশিক্ষক, নৈশপ্রহরী এবং নদেল কর্মচারীদের যৌথ আন্দোলন (বেতনবৃদ্ধি, সমকাজ সমবেতন, অবসরকারী ভাতা সহ মোট ১৫ দফা দাবি নিয়ে) -এ গত ১১ তারিখ থেকে আন্দোলনের সাথে যুক্ত ছিলেন তপন বাবু। আন্দোলন থেকে বাড়ি ফিরে অভাবের তাড়নায় ১২ তারিখ দুপুরে চৌখালি বাজার সংলগ্ন এলাকায় নিজের হোমিওপ্যাথি চেম্বারে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন তপন পট্টনায়েক। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল আনুমানিক ৫৫ বছর।

প্রসঙ্গত তপনবাবুর ২ মেয়ে ১ ছেলে। এক মেয়ের বিয়ে হয়ে গেলও আরেক মেয়ে বিবাহ যোগ্য এবং ছেলে দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়াশোনা করে। বাড়ির সমস্ত খরচ বহন না করতে পারায় মানসিক অবসাদে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন তিনি। বুধবার সকালে ময়না তদন্তের জন্য দেহ আনা হয় পূর্ব মেদিনীপুর জেলা সদর হাসপাতালে। সেখানে সমদেবদনা জানান সহকর্মী ও বৃত্তিমূলক যৌথমঞ্চের সাথে যুক্ত কর্মীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *