Breaking News

তৃণমূলেই থাকছেন নাকি দল পাল্টাচ্ছেন? শুভেন্দুকে ঘিরে রাজনৈতিক মহলে জোর বিতর্ক

তৃণমূলেই থাকছেন নাকি দল পাল্টাচ্ছেন? শুভেন্দুকে ঘিরে রাজনৈতিক মহলে জোর বিতর্ক

তৃণমূলেই থাকছেন নাকি দল পাল্টাচ্ছেন? শুভেন্দুকে ঘিরে রাজনৈতিক মহলে জোর বিতর্ক

নিজস্ব প্রতিবেদন, আদোও কি তিনি তৃণমূলে থাকবেন, নাকি অন্য দলে যোগ দেবেন? রাজনৈতিক মহলে জোর বিতর্ক শুরু হয়েছে। ঘাটালে গতকাল শুভেন্দু অধিকারী জনসভা ছিল। এই সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বিগত দিনের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের স্মৃতিচারণা করেন, এই বক্তব্য রাখতে গিয়ে তার কথাই বারবার উঠে এসেছে “আমাদের দল” মমতা ব্যানার্জির নাম উল্লেখ না করলেও কথা প্রসঙ্গে তিনি “আমাদের নেত্রী” “আমাকে পাঠিয়ে ছিলেন” এই বক্তব্য রাখতে দেখা গিয়েছেপরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে জল্পনার পারদ চড়ছে রাজ্য-রাজনীতিতে। বৃহস্পতিবার পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালে বিজয়া সম্মিলনীতে বক্তব্য রাখেন শুভেন্দু অধিকারী। সেখানে রাজনৈতিক স্মৃতিচারণায় উঠে এল ‘আমার দল, আমার নেত্রী’-র কথা।

এরমধ্যে বৃহস্পতিবার পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালে বিজয়া সম্মিলনীতে সেই শুভেন্দু অধিকারীর রাজনৈতিক স্মৃতিচারণায় উঠে এল ‘আমার দল, আমার নেত্রী’-র কথা। শোনা যাচ্ছে, গত কয়েকদিনে নন্দীগ্রাম-সহ শুভেন্দু অধিকারী যেখানে যেখানে সভা করেছেন, সেখানে সেখানে তাঁর মুখে নিজের দল কিংবা তৃণমূল নেত্রীর প্রসঙ্গ শোনা যায়নি।এদিন তৃণমূল বিধায়ক বলেন, “২০০৮-৯ পুরসভা নির্বাচনের আগে আমার দল, আমাদের প্রার্থীদের মেরে হাত ভেঙে দিয়েছিল, অলি-গলিতে ঘুরেছি, আমার দল দায়িত্ব দিয়েছিল, ২০১১ সালে যখন আমাদের নেত্রী দ্বিতীয় স্বাধীনতা যুদ্ধে নেমেছিলেন তখন এখানে দায়িত্ব দিয়ে পাঠিয়েছিলেন, আমি সেই সব রাজনৈতিক ইতিহাস ভুলিনি”।

এদিন শুভেন্দুর অনুষ্ঠানে দেখা যায়নি ঘাটালের তৃণমূল বিধায়ক শঙ্কর দলুইকে। এ নিয়ে কটাক্ষের সুর বিজেপির গলায়। বিজেপি সহ সভাপতি রাজীব কুণ্ডু বলেন, বিধায়ক যাননি। অন্য গোষ্ঠী ছিল তাই। গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব আছে, ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে দ্বন্দ্ব আছে। এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য না করলেও গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের তত্ত্ব খারিজ করেছেন জেলা তৃণমূল সভাপতি অজিত মাইতি। বলেন, যার যত ক্ষোভ আছে, মমতা ঠিক করবেন, মমতার ত্যাগের কথা মনে আছে। শুভেন্দুর ভবিষ্যত পদক্ষেপ নিয়ে জল্পনার মধ্যেই তাঁকে আক্রমণ করেছেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *