Breaking News

'আজ থেকে শুরু হল বিজয় যাত্রা', জঙ্গলমহলের লালগড়ের বিজেপির জনসভা থেকে জেপি নাড্ডা

‘আজ থেকে শুরু হল বিজয় যাত্রা’, জঙ্গলমহলের লালগড়ের বিজেপির জনসভা থেকে জেপি নাড্ডা

‘আজ থেকে শুরু হল বিজয় যাত্রা’, জঙ্গলমহলের লালগড়ের বিজেপির জনসভা থেকে জেপি নাড্ডা

নিজস্ব প্রতিবেদন, মঙ্গলবার জঙ্গলমহলের লালগড়ে বিজেপির এক জনসভা এবং পরিবর্তন যাত্রা কর্মসূচিতে যোগ দেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। লালগড় ব্লক তৃণমূল কার্যালয়ের চারশো মিটার দূরে অবস্থিত লালগড় ভিলেজ মাঠে বিজেপির পক্ষ থেকে সভার আয়োজন করা হয়। জেপি নাড্ডা বিকেল নাগাদ তারাপীঠ থেকে চপারে করে লালগড় এসে পৌঁছান। এরপর জনসভায় তিনি যোগ দেন এবং বক্তব্য রাখেন। এদিন তিনি বলেন, আজ থেকে বাংলায় শুধু পরিবর্তন যাত্রা শুরু হল, তা নয় আজ থেকে শুরু হল বিজয় যাত্রা। তিনি বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন সবকা সাথ সবকা বিকাশ। কিন্তু সারাদেশের বিকাশ হলেও এ রাজ্যে বিকাশ হয়নি। এর কারণ এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির বিরোধিতা করা। এজন্য ৭৩ লক্ষ্য কৃষক কৃষক সম্মান নিধি থেকে বছরের-পর-বছর বঞ্চিত হয়েছেন। বঞ্চিত হয়েছেন বাংলার মানুষ।

কেন্দ্রের পাঠানো চাল গম চুরি হয়ে গেছে। বর্তমানে দেশের অধিকাংশ রাজ্যে বিজেপি সরকার রয়েছেl সেই সমস্ত রাজ্যের মানুষ সবরকম সহযোগিতা পেয়েছেন। আর এই রাজ্যে বিকাশ ঘটেছে দিদির ভাইপোর। এ রাজ্যে বিজেপির শতাধিক কার্যকর্তা খুন হয়েছেন, মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়া হয়েছে কয়েক হাজার বিজেপি কর্মীকে। প্রতিহিংসার রাজনীতি করতে গিয়ে রাজ্য থেকে আইন-শৃঙ্খলা তুলে দেওয়া হয়েছে। তাই এই সরকারকে বিদায় করতে হবেl রাজ্যে গঠন করতে হবে বিজেপি সরকারল বক্তব্য শেষ করার পর তিনি জঙ্গলমহলে পরিবর্তন যাত্রার সূচনা করেন। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির জনসভা উপলক্ষে লালগড় যাওয়ার সমস্ত রাস্তা গেরুয়া পতাকায় মুড়ে ফেলা হয়l সভা সফল করতে সোমবার থেকেই মেদিনীপুর জোনের পর্যবেক্ষক তথা পুরুলিয়ার সাংসদ জ্যোতির্ময় সিং মাহাতো এবং হাওড়া হুগলি মেদিনীপুর জোনের পর্যবেক্ষক পবন রানা তৎপরতার সঙ্গে সমস্ত প্রস্তুতি সেরে ফেলার কাজ করেন।

এদিনের সভায় নজরকাড়া জমায়েত করতে ঝাড়গ্রাম জেলার এক হাজার পঁচাশিটি বুথের প্রতি বুথ থেকে কম করে আশি জন লোক নিয়ে আসার জন্য মন্ডল গুলিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। সেইসঙ্গে ঝাড়গ্রাম লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার শালবনি ও গড়বেতা বিধানসভা থেকেও কয়েক হাজার মানুষ সমাবেশে যোগ দেন। দলের সর্বভারতীয় সভাপতিকে দেখার আগ্রহ নিয়ে বাঁকুড়া জেলারও বেশ কিছু মানুষ জনসভায় যোগ দিয়েছেন বলে দলের রাজ্য সহ-সভাপতি রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় জানান। বিজেপির ঝাড়গ্রাম জেলার সভাপতি সুখময় সৎপথি বলেন, আমাদের সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডাজির সভায় জনস্রোত প্রমাণ করে দিয়েছে জঙ্গল মহলের মানুষ তৃণমূলকে ত্যাগ করেছেl তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক ছত্রধর মাহাতোর বাড়ি লালগড়েই। তিনি অভিযোগ করে বলেন, রথ যাত্রা করে বিজেপি লালগড়ের শান্তি বিঘ্নিত করতে চাইছে। এদিনের সভায় উপস্থিত ছিলেন উত্তর প্রদেশের উপমুখ্যমন্ত্রী কেশব প্রসাদ মৌর্য, শুভেন্দু অধিকারী, ভারতী ঘোষ,স্বপন দাশগুপ্ত, রাহুল সিনহা, সুকান্ত মজুমদার, কুনার হেমরম সহ একঝাঁক বিজেপি নেতৃত্ব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *